DESACTIVA ADBLOCK PARA VISUALIZAR LA PELICULA

     



আজ তোমাদের সাথে দশটি টিপস শেয়ার করতে চাই যে দশটি টিপস এর যে কোন একটি উপায় ও যদি তুমি অবলম্বন করতে পারো তুমি ছাত্র জীবন থেকেই অর্থ উপার্জন করা শুরু করে দিতে পারবে।

১. Tuition: আমি আমার লাইফের প্রথম টাকা উপার্জন শুরু করি টিউশনি করে। আমার এখনো মনে আছে আমি তিন হাজার টাকার একটি টিউশনি পেয়ে ছিলাম ৮ম শ্রেণীর একজন ছাত্রকে পড়িয়ে। এখান থেকে আমি একটি ব্যাচ পড়ানো শুরু করি এবং এভাবে তা আরো বাড়তে থাকে এবং আজ তোমরা যে ১০মিনিট স্কুল দেখছো তার প্রাথমিক খরচ গুলো ছিল আমার টিউশনির টাকার থেকেই। তাই আজ থেকেই এই এই কাজ শুরু করে দিতে পারো। কেননা হতে পারে এর মাধ্যমেই হতে পারে তোমার উপার্যনের শুরু।

২. Structure: এটা আমার অনেক পছন্দের একটি কাজ। আমি আমার ইউনিভার্সিটির প্রথম বর্ষ থেকেই ডিজাইনের কাজ শুরু করি এবং দেখি প্রচুর ডিজাইনিং এর কাজ পাওয়া যাচ্ছে। বর্তমানেও প্রচুর জায়গা থেকে মানুষ ডিজাইনার খুঁজছে। তাই তুমি যদি ভাল ডিজাইনিং করতে পারো তবে বসে কেনো আজ থেকেই তুমি থেকেই অর্থ উপার্জন করতে পারবে।

3. Editing: “ভিডিও ইডিটিং” তোমরা যারা টেন মিনিট স্কুলের ভিডিও গুলো দেখো প্রতিটি ভিডিও ইডিট করা, তার মানে কেউ একজন এই ভিডিও গুলো কে ইডিট করে। ইডিটিং অনেক গুরুত্বপূর্ণ একটা কাজ। এখন সব জায়গায় সবাই ভিডিও চায় কিন্তু ভাল ভিডিও ইডিটর পায় না। তাই তোমরা যারা ভালো ইডিটিং পারো তোমাদের জন্য অনেক কাজ অপেক্ষা করে আছে।

4. Writing: আমরা লিখতে সবাই পারি। কিন্তু কয়জনই বা পারি তার লিখাটা নিউজপেপার এ ছাপাতে? তোমার লেখার হাত যদি ভালো হয় বাংলায় কিংবা ইংলিশ এ হলেও হবে, প্রচুর ব্লগিং সাইট আছে, নিউজ পেপার, অনলাইন নিউজ পোর্টাল আছে যে সব জায়গায় প্রচুর রাইটারের প্রয়োজন এমন কি ১০ মিনিট স্কুলেও। তাই যারা এই কাজে আগ্রহী শুরু করে দিতে পারো আজ থেকেই এই কাজটি।

5. Freelancing: বর্তমান সময়ে তরুনদের কাছে সবচাইতে আলোচিত একটি শব্দ টি হচ্ছে ফ্রিল্যান্সিং। ফ্রিল্যান্সিং এর অর্থ হলো স্বাধীন বা মুক্তপেশা। অন্যভাবে বলা যায়, নির্দিষ্ট কোন প্রতিষ্ঠানের অধীনে না থেকে স্বাধীনভাবে কাজ করা কে ফ্রিল্যান্সিং বলে। আমার মনে হয় এ কাজটির মানে তোমরা সবাই ইতিমধ্যে জেনে গেছো। কোনো একটা বাইরের কাজ তুমি ফ্রিল্যান্সার হয়েই করে দিচ্ছো, ধরো তুমি ডিজাইনিং এ পারদর্শী, কেউ বা আবার ওয়েব ডেভেলপমেন্টে এমন আরো অনেক কিছু কাজ করে দিতে পারছো ফ্রিল্যান্সার হয়েই। তুমি বাংলাদেশে বসে আমেরিকার যে কারো কাজ করে দিতে পারবে । এমন হাজার হাজার কাজ আছে “আপওয়ার্ক” গেলেই তুমি অনেক কাজ করতে পারো এবং এর মাধ্যমে তুমি তোমার ভাগ্যের পরিবর্তনও আনতে পারো।

ENLACES DE DESCARGA

6. Agency: এটা এক ধরণের কোম্পানি যে কোম্পানি গুলো বড় বড় কোম্পানিরর জন্য ভিডিও ইডিটিং করে দেয়, ডিজাইনিং করে দেয়, প্রেজেন্টেশন তৈরী করে দেয়, কর্পোরেট ইভেন্ট নামিয়ে দেয়। তুমি যদি এরকম কোনো কাজে পটু হয়ে থাকো তাহলে অনেক কোম্পানি তোমাকে খুঁজে নিবে তাদের কাজের জন্যে এমন কি চাইলে তুমিও অনেক “Agency” তে যোগদান করতে পারো।

7. Images: এটা অনেক বিশাল সুযোগের হাতছানি শীক্ষার্থীদের জন্য। যারা ফটোগ্রাফি পারো, ভিডিওগ্রাফি পারো তাদের কে হয়ত বিস্তারিত বলার দরকার আছে যে কত ধরণের সুযোগের হাতছানি তাদের সামনে “Marriage ceremony Images, Corporate Images, Celebration Images” এ ধরণের অনেক সুযোগ তাদের জন্যে খোলা আছে। তোমারা যারা ১০ মিনিট স্কুলের ভিডিও গুলো দেখো সেইগুলো কিন্তু একজন ভিডিও করে যাচ্ছে প্রতিনিয়ত। তাই যারা এসবে অনেক পারদর্শী তাদের জন্য অনেক সুযোগ অপেক্ষা করছে।

8. Modest Business: আমাদের নতুন যে টি-শার্ট গুলো দেখছো তার ডিজাইনটি আমাদের হলেও আমাকে একজন ছেলে তার নতুন করা কোম্পানি থেকে আমাদের এই টি-শার্ট গুলো বানিয়ে দিয়েছে। এমন আরো অনেক ছোট ছোট আইডিয়ার মাধ্যমে শুরু হতে পারে তোমাদের ছোট ব্যবসার পথচলা যা কিনা হয়ে উঠতে পারে তোমার স্বপ্নের চেয়েও বড়।

9. Coding: আইসিটির জোয়ারে বয়ে যাচ্ছে পুরো পৃথিবী। তুমি যদি কোডিং এ ভালো হও তাহলে তুমি এ্যাপস ডেভেলপমেন্ট করতে পারো, ওয়ের ডেভেলপমেন্ট করতে পারো এমন কি হতে পারে তুমি কোনো একটা বড় কোম্পানির জন্য সফটওয়্যার তৈরি করে ফেলতে পারো। ১০ মিনিট স্কুলে আমরা ডিজাইনার খুঁজি, এনিমেটর খুঁজি এবং অনেক কোডার ও খুঁজতেছি যারা কিনা আমাদের জন্যে নতুন নতুন ফিচার তৈরি করতে পারবে। তাহলে আর দেড়ি কেন শুরু করে ফেলো আজ থেকেই কোডিং শেখা আর কাজ করা।

10. Celebration Administration: আমরা অনেকেই অনেক ধরণের ইভেন্ট এ যাই। এমন কি আমার অনেক বন্ধুরা এই ধরণের ইভেন্টে কাজ করছে। হতে পারে ফুড ফেস্টিভাল, কর্পোরেট ইভেন্ট, পহেলা বৈশাখের ইভেন্ট। এমন আরো অনেক কিছু যা সুষ্ঠ ভাবে আয়োজন করে পরিচালনা করাই ইভেন্ট ম্যানেজমেন্ট ফার্ম গুলোর কাজ। তোমার যদি এই ব্যাপারে দক্ষতা থাকে তাহলে এমন অনেক ম্যানেজমেন্ট ফার্ম আছে যেখানে তুমি তাদের সাথে কাজ করতে পারো কিংবা নিজেই বন্ধুদের সাথে নিয়ে খুলে নিতে পারো এমন ইভেন্ট ফার্ম।

তাহলে আর দেড়ি কেনো, তুমি স্কুল, কলেজ কিংবা ইউনিভার্সিটি যেখানেই পড়ো না কেনো এই দশটা কাজ আজ থেকেই শুরু করে দাও কেননা এখনি সময় নিজেকে নিজের দক্ষতা দিয়ে নিজেকে গড়ে তুলার।

Ayman Sadiq
Founder & CEO, 10 Moment Faculty
Instructor | Coach | Speaker

“Be satisfied and distribute joy!”
Personalized Web-site:

Fb Profile:

Fb Site:

Twitter Profile:

LinkedIn Profile:

COMPARTELO EN LAS REDES SOCIALES

Processing your request, Please wait....

Category:

Videos Populares